বল ভেবে খেলতে গিয়ে বোমা ফেটে মৃত্যু কিশোরের

সারা বিশ্ব

মর্মান্তিক ঘটনা। সংবাদের শিরোনামে আবারও কেষ্ট’র গড় বীরভূম। বল ভেবে খেলতে গিয়ে কিনা শেষে বোমা ফেটে মৃত্যু হল এক কিশোরের। ঘটনাটি ঘটেছে জেলার সদর মহকুমার সিউড়ি-২ নম্বর ব্লকের অবিনাশপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের ক্ষতিপুর গ্রামে।

রবিবার দুপুরে এই ঘটনা ঘটলেও ওই কিশোরের মৃত্যু হয় সোমবার ভোররাতে। ঘটনার জেরে পুলিশ তদন্ত শুরু করলেও এখনও পর্যন্ত কাউকে আটক করেনি। তবে গ্রামের মধ্যে কীভাবে বোমা এল তা নিয়ে গ্রামবাসীদের মধ্যে যেমন প্রশ্ন দেখা দিয়েছে তেমনি ক্ষোভও জন্মাচ্ছে। কেন রাজনৈতিক বিবাদের বলি হবে কচিকাঁচারা সেটাই এখন তাঁদের সব থেকে বড় প্রশ্ন হয়ে উঠেছে। রবিবার সকাল।

মধ্য কলকাতার আমহার্স্ট স্ট্রিট এলাকা। এখানেই রয়েছে সিটি কলেজের একটি পরিত্যক্ত হোস্টেল। আশপাশের ছেলেপিলেরা ওখানে মাঝেমধ্যেই খেলতে যায়। সেই পোড়ো বাড়িতেই এদিন বন্ধুদের সঙ্গে খেলতে গিয়েছিল কৌস্তভ নামে স্থানীয় এক কিশোর। সেখানেই এক কোণায় একটি গোলাকার বস্তু দেখে সেদিকে এগিয়ে যায় ১৪ বছরের কৌস্তভ ও তার এক বন্ধু।

বল ভেবে সেটি নিয়ে খেলতে গেলেই ঘটে বিস্ফোরণ। প্রবল বিস্ফোরণে ছিটকে পড়ে দুই কিশোর। রক্তাক্ত অবস্থায় তাদের স্থানীয়রা উদ্ধার করে মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি করেন। সেখানে দুটি হাত ভয়ংকরভাবে জখম কৌস্তভের চিকিৎসা শুরু হয়। অন্য কিশোরের শরীরের বেশ কিছু অংশ বোমার আগুনে পুড়ে গেছে। তারও চিকিৎসা চলছে। এদিকে আমহার্স্ট স্ট্রিট থানা থেকে ঢিল ছোঁড়া দূরত্বে এমন কাণ্ডের পর সেখানে ছুটে যান পুলিশ কর্মীরা। আসেন লালবাজারের আধিকারিকরাও।

গোটা পরিত্যক্ত বাড়ি ঘিরে শুরু হয় তল্লাশি। কোথাও এমন কোনও বোমা লোকানো রয়েছে কিনা তার খোঁজ চলে। মৃতের পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, সকালে খেলতে যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বেরিয়েছিল নাসিরুদ্দিন। একাই খালের পাড়ে খেলছিল। কীভাবে বোমা ফাটল সে বিষয়ে কোনও তথ্যই নেই তাদের কাছে। তবে প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে, বল ভেবে খেলতে যাওয়ায় বোমা ফেটে যায়। এই ঘটনার জেরে এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে।

Tagged