http://igeneration.com.bd/wp-content/uploads/2021/04/হাসপাতালে-পিপিই-পরে-করোনা-রোগীকে-বিয়ে-ভিডিও-ভাইরাল-1.jpg

হাসপাতালে পিপিই পরে করোনা রোগীকে বিয়ে, ভিডিও ভাইরাল

সারা বিশ্ব

দেশজুড়ে নতুন করে আতঙ্ক ছড়িয়েছে করোনা ভাইরাস। দেশে দৈনন্দিন আক্রান্তের সংখ্যা ইতিমধ্যে ছাড়িয়ে গিয়েছে তিন লক্ষের গণ্ডি। ওষুধ নেই, অক্সিজেন-ভ্যাকসিনের আকাল। রাজধানী দিল্লি-সহ হাসপাতালে পিপিই পরে  একাধিক রাজ্যে মৃতের সংখ্যা উর্ধ্বমুখী। এমনকী মৃতদের দাহ করার জায়গাও পর্যন্ত অমিল কোথাও কোথাও।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল সেই ছবিও। তবে এই খারাপের ভিড়েও এবার সামনে এল কেরলের (Kerala) আলাপ্পুঝার মেডিক্যাল কলেজের একটি মন ভাল করে দেওয়ার মতো খবর। যেখানে করোনা আক্রান্ত পাত্রকে কোভিড ওয়ার্ডে পিপিই কিট পরেই বিয়ে করলেন পাত্রী। সংবাদসংস্থা এএনআই সূত্রে খবর, আলাপ্পুঝার কাইনাকারির বাসিন্দা ওই পাত্রের নাম শরথ মন (২৮)। আর পাত্রী থেক্কানারইয়াদের আভিরামি (২০)।

২৫ এপ্রিল অর্থাৎ রবিবারই দু’জনের বিয়ের পিঁড়িতে বসার কথা ছিল। কিন্তু বিয়ের কয়েকদিন আগেই করোনায় আক্রান্ত হন শরথ এবং তাঁর মা। এরপরই তাঁদের আলাপ্পুঝার মেডিক্যাল কলেজের কোভিড ওয়ার্ডে ভরতি করা হয়। এরপর দুই বাড়িরই মাথায় হাত পড়ে। কারণ বিয়ের দিন পাত্র ভরতি হাসপাতালে।

সেক্ষেত্রে বিয়ে পিছিয়ে দেওয়া ছাড়া উপায় ছিল না। তারপরই দুই বাড়ি ঠিক করে বিয়ে হবে। সেই মতো জেলাশাসক এবং হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে বিয়ের জন্য অনুমতি চেয়ে আবেদন জানানো হয়। আর দুই তরফ থেকেই অনুমতি মেলে। শেষপর্যন্ত এদিনই হাসপাতালের কোভিড ওয়ার্ডে আভিরামিকে বিয়ে করেন শরথ।

ইতিমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে দু’জনের বিয়ের একাধিক ছবি। সেখানে দেখা যাচ্ছে, শাড়ি-গয়নায় সেজে নয়, পিপিই কিট পরে বিয়ে করতে এসেছেন আভিরামি। অন্যদিকে, শরথের পরণে নীল জামা এবং প্যান্ট। হাসপাতালের চিকিৎসক, নার্স এবং পরিবারের অল্প কয়েকজন সদস্যদের উপস্থিতিতেই দুজনে বিয়ে সারেন।

ইতিমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে বিয়ের সেই ছবি। অনেকেই নবদম্পতিকে আশীর্বাদও জানিয়েছেন। তবে এই প্রথম নয়, এর আগে গত বছরও এই ধরনের বেশ কিছু ঘটনা সামনে এসেছিল।