গুগলের প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে ৫টি সার্চ ইঞ্জিন

প্রযুক্তি এসইও

সাধারণত একটি সার্চ ইঞ্জিনের ওয়েব ক্রলার বা সার্চ রোবট বা সার্চ স্পাইডার প্রায় সবসময় ওয়েবে থাকা একটি ওয়েবপেজ অন্য ওয়েবপেজে ও একই ভাবে এক ওয়েবসাইট থেকে অন্য ওয়েবসাইট ঘুরে বেড়ায়। সার্চ ইঞ্জিন, ওয়েব জগতের একটি গুরুত্বপূর্ণ আবিষ্কার।

সার্চ ইঞ্জিন ছাড়া ইন্টারনেট এত শক্তিশালী হতে পারত না। সার্চ ইঞ্জিনসমূহ যেমন গুগল, ইয়াহু, বিং ইত্যাদি আপনাকে নির্দিষ্ট তথ্য খুজে পেতে সহায়তা করে। আপনার প্রতিটা সার্চের হিস্টোরি গুগল সংরক্ষণ করে। এবং এটির উপর ভিত্তি করে গুগল পরবর্তীতে আপনাকে ফলাফল প্রদর্শন করে ও বিভিন্ন অ্যাড শো করে।

দেখে নেয়া যাক গুগলের সার্চ ইঞ্জিনে ছাড়া আরও কিছু সার্চ ইঞ্জিন।

১। বিং সার্চ ইঞ্জিনঃ সার্চ ইঞ্জিন এবং ব্রাউজার সেবার দিক থেকে অনেকটাই পিছিয়ে পড়া মাইক্রোসফট এ খাতে যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে নতুনভাবে। ‘ব্যবসায়িক সার্চ ইঞ্জিন’ হিসেবে নতুন করে বিং এবং এজ ব্রাউজার উন্মোচন করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

মাইক্রোসফটের তথ্যমতে গ্রাহক পিসিতে যতটা সময় দেন তার ৬০ শতাংশ ব্যয় হয় ওয়েব ব্রাউজারে। আর এটিই তাদের কাজের শেখার এবং খেলার প্রথমিক মাধ্যম।

২। ডাকডাকগো: নিরাপত্তার ক্ষেত্রে একচুল ও ছাড় নয়? তাহলে ডাকডাকগো আছে তো!। ডাকডাকগো লঞ্চ হয় ২০০৮ সালের সেপ্টেম্বরে। এটি তৈরির মূল উদ্দেশ্যই ছিলো এর গ্রাহকদের নিরাপত্তার সাথে তথ্য দেয়া।

(DuckDuckGo) ডাকডাকগো ডট কম বিভিন্ন ক্রাউড সোর্স যেমন উইকিপিডিয়া ইত্যাদি থেকে তথ্য সংগ্রহ করে এবং ব্যবহারকারীকে তা প্রদর্শন করে। ইতোমধ্যে অনলাইন মার্কেটারদের কাছে তা জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে।

৩। বাইডুঃ বাইডু একটি চীনা সার্চ ইঞ্জিন। বাইডু সার্চ ইঞ্জিন ২০০০ সালের দিকে তৈরি হয় এবং এটি বর্তমানে চীনের সবচেয়ে জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন। চীন ভিত্তিক জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন হলো বাইডু।

গুগুলকে ব্যবহার না করে চীন তাদের নিজস্ব সার্চ ইঞ্জিন Baidu ব্যবহার করে। তবে চীন ছাড়া আরো কয়েকটি দেশে কম বেশী বাইডু ব্যবহৃত হয়ে থাকে। বাইডু চীনের নীতিমালা অনুসারে পরিচালিত হয়ে থাকে।

৪। ইয়ানডেক্সঃ রাশিয়া ভিত্তিক জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন হলো ইয়ানডেক্স। তবে রাশিয়া ছাড়াও আরো কয়েকটি দেশে Yandex ব্যবহৃত হয়ে থাকে। এটি তৈরি হয় ১৯৯৭ সালে।

৫।ইয়াহু সার্চ ইঞ্জিন : পৃথিবীর প্রথম জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন। ১৯৯৪ সালে ইয়াহুর যাত্রা শুরু। প্রথমে এটি ডিরেক্টরি
সাবমিশন ওয়েবসাইট হলেও পরবর্তীতে তা সার্চ ইঞ্জিনে রুপান্তর করা হয়।এক সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন এখন তার খারাপ সময় পার করছে।

সঠিক সিদ্ধান্তে কম সময়ে সবচেয়ে জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন হয়ে উঠেও, কিছু ভূল পদক্ষেপ এর কারণে ইয়াহুকে আজ হিসেব চুকাতে হচ্ছে।