http://igeneration.com.bd/wp-content/uploads/2021/05/Indian-women-footballers-are-working-in-brick-kilns-due-to-financial-difficulties.jpg

অর্থকষ্টে ইটভাটায় কাজ করছেন ভারতীয় নারী ফুটবলার

খেলাধুলা

করোনা মহামারীতে মাঠের খেলা বাদ দিয়েছেন সংগীতা। পেট চালাতে করছেন কঠোর পরিশ্রম। পরিবারকে অর্থনৈতিকভাবে সাহায্য করতে কাজ নিয়েছেন এক ইটভাটায়। অর্থকষ্টে ইটভাটায় কাজ করছেন ভারতীয় নারী ফুটবলার।

সংগীতা সোরেনের বয়স ২০। ঝাড়খণ্ডের সিনিয়র পর্যায়ে ছাড়াও খেলেছেন ভারত অনূর্ধ্ব ১৭ এবং ১৮ দলে। জাতীয় দলেও ডাক পেয়েছিলেন। বাবা ডুবা সোরেন চোখে সমস্যা। বড় ভাই দিন মজুর। লকডাউনের কারণে উপার্জনের পথ ছিল না। অন্যদিকে মাঠেও মাঠে নেই। শেষ পর্যন্ত পরিবারের হাল ধরেছেন সংগীতা। ইটভাটায় মা-মেয়ে মিলে কঠোর পরিশ্রম করছেন।

২০১৮/১৯ সালে ভুটান এবং থাইল্যান্ডে মহাদেশীয় স্তরে বয়স-গ্রুপ টুর্নামেন্টের জন্য অনূর্ধ্ব -১৭ ভারতীয় দলে সুযোগ পেয়েছিলেন। ঝাড়খণ্ডের ধানবাদের ইটভাটায় কাজ করছেন ভারতীয় দলের ফুটবলার এই বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয় গেল বছরই।

লকডাউন চলাকালীন সময় সাহায্য চেয়েছিলেন। এমন একটি ভিডিও নজর এড়ায়নি ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন। সেসময় সাহায্যের প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছিল। যদিও সেই সহায়তা পাননি সংগীতা।

তবে এবার দেশটির কেন্দ্রীয় ক্রীড়া মন্ত্রী কিরেন রিজুজু এগিয়ে এসেছেন। ইন্ডিয়া টুডে জানিয়েছে, সংগীতার পরিবারের কাছে পৌঁছে দেয়া হয়েছে ১ লাখ রুপি। পাশাপাশি ধানবাদের তৃণমূল ফুটবল দলের কোচ হিসেবে নিয়োগ দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে তাকে। নিয়মিত বেতন দেয়ারও আশ্বাস প্রদান করা হয়েছে।

Tagged