http://igeneration.com.bd/wp-content/uploads/2021/05/বম্বে-হাইকোর্টে-বিসিসিআই-এর-বিরুদ্ধে-১০০০-কোটি-টাকার-মামলা.jpg

বম্বে হাইকোর্টে বিসিসিআই-এর বিরুদ্ধে ১০০০ কোটি টাকার মামলা

খেলাধুলা

আইপিএল স্থগিত হওয়ায় এমনিতেই বিপাকে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। তার উপর বম্বে হাইকোর্টে বিসিসিআই বিরুদ্ধে ১ হাজার কোটি টাকার জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেছেন মুম্বাইয়ের আইনজীবী বন্দনা শাহ। বুধবার মুম্বাই হাইকোর্টে এই মামলা দায়ের করেন তিনি। গোটা ভারত জুড়ে করোনাভাইরাসে দৈনিক প্রাণ যাচ্ছে হাজারো মানুষের।কিন্তু দেশের এই পরিস্থিতিতে বিসিসিআই কর্তারা অর্থের জন্য আইপিএল চালিয়ে গিয়েছে। এ কারণই ছিল মামলার প্রধান কারণ।

বন্দনা শাহ’র করা জনস্বার্থ মামলায় বলা হয়েছে, বিসিসিআই যেন ১ হাজার কোটি টাকা কোভিড আক্রান্ত মানুষদের অক্সিজেন ও ঔষধের জন্য খরচ করে এবং দেশের মানুষের কাছে ক্ষমা চায়।

মামলা দায়ের করা আইনজীবী বন্দনা শাহ এ নিয়ে বলেন, “বিসিসিআই কর্তাদের অহংকারের শেষ নেই। দেশে এত মানুষের মৃত্যু হচ্ছে দৈনিক অথচ তারা খেলা নিয়ে ব্যস্ত। এটা মানবিকতা পরিপন্থী কাজ মনে হয়েছে আমার কাছে। বিসিসিআই এর কর্তাদের যদি দেশের মানুষের প্রতি নূন্যতম দায়িত্ব, মূল্যবোধ থাকে তবে অন্তত ১হাজার কোটি টাকা কোভিড আক্রান্ত মানুষদের অক্সিজেন এবং ওষুধ কিনতে ব্যয় করে। এছাড়া দেশের মানুষের কাছে যেন কাছে ক্ষমা চায়।

দিল্লিতে করোনার প্রকোপ বেশি হওয়ায় ভেন্যু পাল্টে মুম্বাই ও মহারাষ্ট্রে ম্যাচ আয়োজনের পরিকল্পনা করছিল বোর্ড। এ নিয়েও কথা বলেন বন্দন শাহ নামের ওই আইনজীবী। মুম্বাই ও মহারাষ্ট্রেও করোনা পরিস্থিতি উদ্বেগজনক। অথচ বিসিসিসিআই এর পরিকল্পনায় ছিল বাকি ম্যাচগুলো এখানে আয়োজন করার। এতেই প্রমাণ হয় তারা শুধু অর্থের পেছনে ছুটেছে। ক্রিকেট আমারও পছন্দের কিন্তু, দেশের বিপদের সময় অন্তত এসব নয়।

উল্লেখ্য, গত ৯ মার্চ কঠোর জৈব সুরক্ষা বলয় গঠন করে আইপিএল শুরু করলেও ২ মে কলকাতা নাইট রাইডার্সের দুই ক্রিকেটারের করোনা আক্রান্তের খবরে ম্যাচ কলকাতা-ব্যাঙ্গালুরুর ম্যাচ স্থগিত করতে বাধ্য হয় আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিল। এরপর একে একে বেশ কয়েকজন আক্রান্ত হন কয়েকটি দলের। তাতেই ৪ মে ঘোষণা আসে টুর্নামেন্ট স্থগিতের।