অনলাইন মার্কেটিং এর কাজ কি?

অনলাইন মার্কেটিং

অনলাইন মার্কেটিং কি ?

অনলাইন মার্কেটিং বলতেই কোন পন্য বা ব্যবসাকে প্রচার করা। প্রতিদিন গড়ে প্রচুর ওয়েবসাইট এবং অনলাইন ব্যবসা চালু হচ্ছে। এখন আপনার যদি নিজের কোন অনলাইন ব্যবসা বা ব্লগ অথবা অনলাইন সাইট থাকে। সে সাইটকে তো পরিচিতি দিতে হবে ঠিক না!তার জন্য প্রয়োজন আপনার সাইটের প্রচার।আপনি যত প্রচার করবেন ততো আপনার সাইট সম্পর্কে মানুষ জানবে।আর এই প্রচার করার মাধ্যমকে সহজ ভাষায় বলে অনলাইন মার্কেটিং।

কেন করবেন অনলাইন মার্কেটিং?

আপনি একটি ব্যবসা শুরু করেছেন। এখন সে ব্যবসা প্রসার করতে হলে আগে জানাতে হবে সবাইওকে যে আপনার একটি ব্যবসা আছে,কারন জানলো না আপনার ব্যবসা আছে তাহলে কিভাবে আপনি বেচা-কেনা করবেন? আপনাকে প্রচার করতে হবে যে আপনার একটি ব্যবসা আছে এবং সে ব্যবসার মূল উদ্দেশ্য কি বা আপনার ব্যবসার সাথে কি কি বিষয় জড়িত।

অনলাইন মার্কেটিং ঠিক সে রকম,আপনার কোন ব্যবসা বা সাইট সম্পর্কে অনলাইনে প্রচার করা।কারন কথায় আছে প্রচারেই প্রসার। আপনি যদি অনলাইন মার্কেটিং করেন তাহলে সবার মুখে মুখে আপনার ব্যবসা সম্পর্কে জানা হবে এবং আপনি ব্যবসার কার্যক্রম ভালো চলবে।

আর এই কারনে আপনাকে করতে হবে অনলাইন মার্কেটিং। আগে এক সময় ছিলো যখন প্রচার বা বিজ্ঞাপন হত পেপারের লিফলেটের মাধ্যমে,বর্তমানে বিজ্ঞাপনের সবচেয়ে ইজি ওয়ে অনলাইন মাধ্যম।অনলাইনের মাধ্যমে খুব সহজে বর্তমানে হাজার হাজার মানুষের কাছে পৌঁছে যায় একটি সাইট বা কোম্পানীর তথ্য।

কি ধরনের মার্কেটিং করা যায়

মার্কেটিং এর বর্তমানে প্রচুর ধাপ তৈরি হয়েছে,যার ফলে নিত্য নতুন ভাবে মার্কেটিং করা যাচ্ছে।তবে খুব জনপ্রিয় অনলাইন মার্কেটিং হল এসইও।সার্চ ইঞ্জিন অপটোমাইজেশন(এসইও) যার মাধ্যমে আপনি আপনার সাইটকে সবার প্রথমে আনতে পারবেন।আমরা গুগলে অনেক কিছুই সার্চ করি।এখন আপনার ব্যবসা বা সাইট এসইও করে গুগলের পেজে প্রথমে নিয়ে এলে যখন কোন ব্যক্তি কিছু সার্চ করবে তখন সবার প্রথমে আপনার সাইটটি সবার চোখে পড়বে।

তা ছাড়া যেসকল মার্কেটিং আপনি করতে পারেন

  • সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং(এসইএম)
  • কন্টেন্ট মার্কেটিং
  • সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং(এসএমএম)
  • পে পার ক্লিক অ্যাডভ্যারটাইজিং(পিপিসি)
  • ইমেইল মার্কেটিং

অনলাইন মার্কেটিং কিভাবে করবেন

অনলাইন মার্কেটিং বর্তমানে বিশ্বসেরা একটি মাধ্যমে প্রচারের জন্য।আপনি অনলাইন মার্কেটিং করার জন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে সবার প্রথমে বেছে নিতে পারেন।সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আপনার সাইট বা ব্যবসার জন্য পেজ তৈরি করে প্রচার করতে পারেন,গ্রুপের মাধ্যমে প্রচার করতে পারেন।এছাড়া বিভিন্ন অনলাইন মার্কেটিং করে দেয় এধরনের কোম্পানী আছে তাদের মাধ্যমে করতে পারেন।

অনলাইন মার্কেটিং করে বিভিন্ন সাইট নিজেদের পরিচয় সবার সামনে তুলে এনেছে।আপনিও আপনার সাইটকে প্রোমোট করতে পারেন।এতে আপনার ব্যবসার প্রচারের সাথে প্রসার হবে।

অনলাইন মার্কেটিংয়ের সেরা সোশ্যাল সাইট

নিচে অনলাইন মার্কেটারদের উপযোগি সোশ্যাল মিডিয়া নেটওয়ার্কিং সাইট সম্পর্কে জানানো হলো।

ফেইসবুক

ফেইসবুকে বিশ্বের এক নাম্বার সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট একথা নতুন করে বলার দরকার নেই।  এই বছরেই এটি ৩০০ কোটি ছাড়িয়ে যাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। আর এই বিশাল জনগোষ্ঠির মাঝেই রয়েছে আপনার পণ্য বা সেবার গ্রহীতা কিংবা আপনার ওয়েবসাইটের সম্ভাব্য ভিজিটর। ফেইসবুকে কেনো এবং কিভাবে আপনি আপনার পণ্য বা সেবার প্রচারণা করবেন সেটি দেখা যাক।

• এখানে আপনি আপনার ব্যবসার প্রচারণার জন্য একটি ইউনিক পেইজ খুঁলতে পারবেন। আর এই নামটি যেনো আপনার ব্যবসায় সম্পর্কিত বা প্রতিষ্ঠানের নামেই হয় সে বিষয়টি খেয়াল করতে হবে।
• একটি ফেইসবুক পেইজ আপনার ব্যবসায়ের পূর্ণাঙ্গ প্রোফাইল ধারণ করে। এতে যুক্ত সবাই আপনার ব্যবসা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন। ঠিক সেভাবেই আপনার পেইজটিকে সাজানো উচিত, যাতে সম্ভাব্য ক্রেতারা আগ্রহী হয়।
• থাম্বনেইল হিসেবে আপনার ব্যবসায়ের লোগো ব্যবহার করুন। এটি আপনার ব্যবসায়ের প্রাথমিক পরিচয় বহন করে। এছাড়া কাভার ফটোতে অবশ্যই গুরুত্ব দিতে হবে। এটি অডিয়েন্সের মধ্যে বিশেষ প্রভাব ফেলে।
• যখন আপনি কেনো পেইজ খুঁলবেন তখন এটিতে আপনার কোম্পানির তথ্য ও যোগাযোগের উপায়গুলো দিয়ে দিবেন। ফলে ক্রেতা বা সেবাগ্রহীতারা সহজেই যোগাযোগ করতে পারবে।
• পেইজে একাধিক অ্যাডমিন যুক্ত করুন। আপনি ব্যস্ত থাকলে অন্য অ্যাডমিনরাও কনটেন্ট ও পোস্ট দিতে পারবে।

লিংকডইন
প্রায় ২৬ কোটি ব্যবহারকারী নিয়ে লিংকডইন সবচেয়ে জনপ্রিয় প্রফেশনাল নেটওয়ার্কিং ওয়েবসাইট।  আপনার প্রফেশনাল প্রোফাইল তৈরি করার ও কমিউনিটি তৈরির সুযোগ রয়েছে।  আপনার পণ্য বা সেবার জন্য ব্র্যান্ড আইডেন্টিটি তৈরির সুবিধা দেয়। এই সাইট থেকে আপনি কি পাবেন সেটি দেখে নেওয়া যাক।
• এখানে আপনার ব্র্যান্ডের জন্য গ্রুপ তৈরি ও সংযুক্তদের সঙ্গে এটি প্রোমোট করতে পারবেন।
• তৈরি করা ব্র্যান্ড গ্রুপকে নিজের মতো সাজাতে পারবেন।
• আপনার গ্রুপে যারা আছে তাদের মাধ্যমেই নতুন কানেকশনের সাজেশন পাবেন। যার মাধ্যমে আপনার নেটওয়ার্ক আরও বৃদ্ধি পাবে।
• আপনার ব্যবসায়ের ধরণ অনুযায়ী সম্ভাব্য ক্লায়েন্ট খুঁজতে পারবেন।

টুইটার
মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারে বর্তমানে প্রায় ২৫ কোটি ব্যবহারকারী রয়েছে। বিশ্বের সেলিব্রেটি, বিশেষ ব্যক্তি, ব্যবসায়ী, প্রতিষ্ঠান এই সাইটটি সক্রিয় থাকেন।  আপনার কি কাজে লাগতে পারে সাইটটি।
• টুইটারে আপনি একটি ইউনিক ইউআরএল পাবেন।
• এতে আপনার ব্যবসায়ের প্রোফাইল ছবি, হেডার ছবি এবং ব্যাকগ্রাউন্ড দিতে পারবেন পছন্দমতো।
• আপনার ব্যবসায়ের ওয়েবসাইট যুক্ত করতে পারবেন সাইটটিতে, যা ব্যবহারকারীদের সরাসরি ভিজিট করার সুযোগ দেবে।
• আপনার ব্যবসায়িক ওয়েবসাইটে টুইটার এপিআই উইজেট ব্যবহার করতে পারবেন।
• হ্যাশট্যাগ, অ্যাট (@) ইত্যাদি সাংকেতিক চিহ্ন ব্যবহার করে আপনার কাঙ্খিত ব্যাক্তি বা কমিউনিটির সঙ্গে যোগাযোগ সমন্বয় করতে পারেন।

পিন্টারেস্ট
এটি বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুত জনপ্রিয় হওয়া সোশ্যাল বুকমার্কিং সেবার সাইট। বর্তমানে প্রায় ৮ কোটি ব্যবহারকারী রয়েছে সাইটটির।

এখানে আপনি যা যা সুবিধা পাবেন:
• এই নেটওয়ার্কে আপনার বিজনেস প্রোফাইল তৈরি করতে পারবেন।
• এটি আপনার ব্যবসায়ের নামানুসারে একটি পার্সোনালাইজড ইউজার নেম দেয়।
• এখানে আপনার অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া লিংক যুক্ত করতে পারবেন। যেমন এই সাইটের সঙ্গে আপনার ফেইসবুক প্রোফাইল যুক্ত থাকলে আপনি যখনই কোনো ছবি পিন করবেন, তখন এটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপনার ফেইসবুকে শেয়ার করে দিবে। আপনার একটি ওয়েবসাইট থাকলে এই সাইট থেকে ডুফলো ব্যাকলিংক পেতে পারেন।