http://igeneration.com.bd/wp-content/uploads/2021/04/যে-দোয়ায়-মাফ-হবে-৮০-বছরের-গুনাহ.jpg

যে দোয়ায় মাফ হবে ৮০ বছরের গুনাহ

ইসলাম

হযরত আনাস ইবনে মালিক (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন; আল্লাহ তাআলা বলেন, বান্দা যখন আমার দিকে হেঁটে আসে, আমি তখন তার দিকে দৌড়ে যাই। বান্দা যতক্ষণে আমার দিকে এক বিঘত অগ্রসর হয়, আমি ততক্ষণে তার দিকে এক হাত অগ্রসর হই। (বুখারি)

অর্থাৎ, আমরা গুনাহগাররা আল্লাহর নিকট পরকালের শাস্তি থেকে মুক্তি চাইলে বা আল্লাহর কাছে আমাদের প্রয়োজনীয় জিনিস চাইলে পরমকরুণাময় শর্তবিহীন তা দিয়ে দিতে পারে। সেজন্য আমাদের চাওয়ার মতো করে চাইতে হবে।

তবে আমরা শরিয়তের আদেশ–নিষেধ লঙ্ঘন করে, আল্লাহর নির্দেশ অবহেলা করে ও নিষেধ অমান্য করে অনেক গুনাহ করে ফেলি। ছোট বা বড় পাপ করতে করতে আমরা আমাদের গুনার বোঝা ভারী করে ফেলি। তবে করুণাময় আল্লাহ আমাদের পাপকে মুক্ত করার প্থ দেখিয়ে দিয়েছেন।

পরম ক্ষমাশীল, অতিশয় দয়ালু আল্লাহর কাছে নিজেদের গুনাহ থেকে পরিত্রানের অনেক আমল রয়েছে। মহানবী হযরত মুহাম্মাদ (সা.) তার উম্মতের জন্য এ রকম অনেক আমলের কথা বলেছেন। এর মাঝে একটি আমল আছে যা ঠিকমতো পালন করলে আল্লাহ আমাদের জিবনের ৮০ বছরের গুনাহ মাফ করে দিবেন।

হাদিসে এসেছে, যে ব্যক্তি জুমার দিনে রাসুলুল্লাহ (সা.) প্রতি ছোট্ট একটি দরূদ পাঠ করবে, তার জন্য অনেক সওয়াব রয়েছে। দরুদটি জুমার দিন আসরের নামাজের পর ৮০ বার পড়লে, তার ৮০ বছরের গোনাহ্ মাফ হবে এবং ৮০ বছর ইবাদতের সওয়াব তার আমলনামায় লেখা হবে।

দরুদটি হলো: ‘আল্লাহুম্মা সাল্লি আ’লা মুহাম্মাদিনিন নাবিয়্যিল উম্মিয়্যি ওয়া আ’লা আলিহি ওয়া সাল্লিম তাসলিমা।’

আল্লাহ আমাদের সবাইকে জুমার দিনে আসর নামাজের পরে নবী কারীম (সা.) প্রতি এই দরুদটি পড়ার তৌফিক দান করুক এবং এই দরুদের উছিলায় আল্লাহ তার গুনাহগার বান্দাদের মাফ করে দিক। আমিন।