স্বাস্থ্যজ্জ্বল চুল পেতে সপ্তাহে কতবার শ্যাম্পু করবে!

স্বাস্থ্য

সিল্কি চুল কে না চায়? আর এজন্য প্রয়োজন সঠিক ভাবে চুলের যত্ন নেয়া। আর চুল সঠিকভাবে যত্ন নিতে হলে প্রথমে জানতে হবে চুল ধোয়ার সঠিক পদ্ধতি। বাইরের ধুলাবালি, ময়লা, আর ঘাম চুলের বারোটা বাজিয়ে দেয়। এতে করে চুলে দেখা দেয় খুশকি, র‍্যাশ, চুল পড়া এবং পেকে যাওয়ার মত নানা সমস্যা । তাই নিয়মিত শ্যাম্পু করে চুল পরিষ্কার করে নিতে হবে। তবে অনেকেই হয়তো জানেন না প্রতিদিন শ্যাম্পু করা চুলের জন্য ক্ষতিকর। এতে করে তুলের যে প্রাকৃতিক তেল থাকে তা চলে যায়। ফলে চুল নিষ্প্রাণ দেখায়।

বিভিন্ন  চুলের ধরন অনুযায়ী সপ্তাহে কতবার চুল ধোয়া উচিত তা জেনে নেওয়া যাক 

স্ট্রেট চুল

আপনার চুল যদি সোজা বা স্ট্রেট হয় তাহলে সপ্তাহে তিন দিন চুল ধুতে পারেন। এই ধরনের চুলে খুব বেশি কন্ডিশনারের তেমন প্রয়োজন  হয় না এবং চুল শ্যাম্পু করার পরে আপনি চুলে সিরাম ব্যবহার করতে পারেন।

কোঁকড়ানো চুল

সাধারণত কোঁকড়ানো চুল শুষ্ক ধরনের হয়ে থাকে। তাই বারবার কোঁকড়ানো চুল ধুলে চুলের ক্ষতি হয়। কোঁকড়ানো চুল সপ্তাহে দুইবার শ্যাম্পু করে ধুতে পারেন।  তবে এ ধরণের শুষ্ক চুলে অবশ্যই কন্ডিশনার একটু বেশি ব্যবহার করুন এবং  সাথে নিয়মিত সিরাম লাগিয়ে নিন।

ওয়েভি চুল

 মাঝামাঝি এক ধরণের চুল আছে যা  কোঁকড়ানোও না আবার সোজাও না। এই ধরণের চুলকে বলা হয় ওয়েভি চুল। ওয়েভি চুলে সপ্তাহে দুই থেকে তিনবার ধোয়া উচিত। এই ধরনের চুলের জন্য এমন শ্যাম্পু ব্যবহার করা উচিত যা চুলকে খুব বেশি শুষ্ক বা  তৈলাক্ত না করে। এছাড়া শ্যাম্পুর আগে চুলে কন্ডিশনার লাগিয়ে চুল ধুতে পারেন। এতে স্ক্যাল্প খুব বেশি তৈলাক্ত হবে না। চুলে কন্ডিশনারের পুষ্টিও মিলবে।

ফ্রিজি চুল

 ফ্রিজি যাদের চুল তাদের জন্য সপ্তাহে অন্তত দুইবার চুল ধোয়া উচিত। যদি চুল খুব বেশি নোংরা হয় তবে আপনি তিনবার চুল ধুতে পারেন। ফ্রিজি হেয়ার খুব বেশি ধোয়া উচিত নয় কারণ  এতে করে চুল ড্রাই হয়ে যেতে পারে। ফ্রিজি চুলের ক্ষেত্রে ময়েশ্চারাইজিং কন্ডিশনার ব্যবহার করা উচিত।

Tagged