বন্ধুর বাসায় তামিল অভিনেতার আত্মহত্যা

বিনোদন

প্রতিভাবান তামিল অভিনেতা ইন্দ্র কুমার আর নেই। গেলো বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) চেন্নাইয়ে বন্ধুর বাসার সিলিং ফ্যানে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন তিনি।

পুলিশ জানায়, ঘটনার আগের দিন (১৭ ফেব্রুয়ারি) বন্ধুর বাসায় ঘুরতে আসেন ইন্দ্র। একসঙ্গে সিনেমা দেখে নিজ ঘরে ঘুমাতেও যান তিনি। তবে পরদিন সকালে তাকে ঘর থেকে বের হতে না দেখে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন বন্ধুর বাসার সবাই। ঘর থেকে কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকেন তারা। সেখানেই ফ্যানের সঙ্গে দেখা মিলে ইন্দ্রের নিথর দেহ।

ভারতীয় গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে পুলিশ জানায় “১৭ই ফেব্রুয়ারি চেন্নাইয়ের এক বন্ধুর বাসায় ঘুরতে আসেন ইন্দ্র। একসঙ্গে সিনেমা দেখে নিজ ঘরে ঘুমাতেও যান তিনি। তবে পরদিন সকালে তাকে ঘর থেকে বের হতে না দেখে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন বন্ধুর বাসার সবাই।

ঘর থেকে কোন সাড়া শব্দ না পেলে,দরজা ভেঙে ঘরে ঢোকেন তারা। সেখানেই ফ্যানের সঙ্গে দেখা মিলে ইন্দ্রের নিথর দেহের। ঘটনাটি নিয়ে আমরা অনুসন্ধান শুরু করেছি। আশা করছি খুব দ্রুতই কিছু জানাতে পারব”।

ইন্দ্র কুমার যে ঘরে ছিলেন, সেখান থেকে কোনো সাড়া পাওয়া না গেলে তাঁর বন্ধু সেখানে প্রবেশ করেন এবং দেখেন, ইন্দ্রের দেহ সিলিং ফ্যানে ঝুলছে। এরপর অভিনেতার বন্ধু পুলিশকে খবর দেন এবং পরে পুলিশ ইন্দ্রের মরদেহ উদ্ধার করে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বন্ধুর বাসায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন ইন্দ্র। আগের রাতে বন্ধুর বাড়িতে সিনেমা দেখতে গিয়েছিলেন এ অভিনেতা। পরে তিনি কক্ষে প্রবেশ করেন, কিন্তু সকালে তাঁকে বের হতে দেখা যায়নি।

পত্রপত্রিকার খবর, ইন্দ্র কুমার পারিবারিক সমস্যায় ভুগছিলেন। তাঁর স্ত্রী ও এক পুত্রসন্তান রয়েছে। ইন্দ্র সিনেমায় অভিনয় করতে চেয়েছিলেন, কিন্তু কোনো সুযোগ পাচ্ছিলেন না। ইন্দ্র কুমারের রহস্যজনক মৃত্যুর সঠিক কারণ উদঘাটনে পুলিশ তদন্ত করছে।

ইন্দ্রর পরিচিতজনদের মতে, সে বেশ কিছু পারিবারিক সমস্যার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছিলেন। সাথে ক্যরিয়ার নিয়েও নানা দুশ্চিন্তায় ছিলেন তিনি। তার স্ত্রী এবং একজন পুত্র সন্তান রয়েছে।

Tagged