http://igeneration.com.bd/wp-content/uploads/2021/05/The-child-was-born-before-the-mothers-marriage.jpg

মায়ের বিয়ের আগেই সন্তানের জন্ম!

বিনোদন

বাংলাদেশের একসময়ের জনপ্রিয় টেলিভিশন অভিনেত্রী শমী কায়সারের জন্ম ১৯৬৯ সালের ১৫ জানুয়ারি। সে হিসেবে তার বয়স এখন ৪৯ বছর। শমী কায়সার শহীদ বুদ্ধিজীবী শহিদুল্লা কায়সারের স্ত্রী পান্না কায়সারের মেয়ে। বাংলাদেশের সাবেক রাষ্ট্রপতি একিউএম বদরুদ্দুজা চৌধুরীর স্ত্রী মায়া পান্না কায়সারের বোন। ফলে, শমী এবং রাজনীতিবিদ মাহি বি. চৌধুরী খালাতো ভাই-বোন। শমীর একজন ছোট ভাই আছেন, অমিতাভ কায়সার।

এ বিষয়গুলো হয়তো অনেকেই জানেন। তবে আর একটি বিষয় আছে যেটি হয়তো দেশের অনেক সাধারণ মানুষ জানেন না।Wikipedia তে শমী কায়সার লিখে সার্চ দিয়ে দেখা যায় তার জন্ম ১৯৬৯ সালের ১৫ জানুয়ারি। অন্যদিকে তার মা পান্না কায়সার লিখে সার্চ দিলে দেখা ১৯৬৯ সালে শহীদুল্লা কায়সারকে বিয়ে করেন তিনি।

অর্থাৎ একই বছরের মায়ের বিয়ে এবং কন্যার জন্ম। অনেক ক্ষেত্রে এটাও স্বাভাবিক। যদি মায়ের বিয়ে জানুয়ারিতে হয় এবং এর ৯-১০ মাস পরে কন্যার জন্ম হলে অস্বাভাবিকের কিছুই নেই। তবে কন্যার জন্ম যদি একই বছরের জানুয়ারিতে হয় তবে? হ্যা, যা ভাবছেন বিষয়টি আসলে তাই। জনপ্রিয় অভিনেত্রী শমী কায়সারের জন্ম হয়েছিলো তার মায়ের বিয়ের আগেই। শহীদুল্লাহ কায়সার এর সাথে তার দ্বিতীয় স্ত্রী পান্না কায়সারের বিয়ে হবার আগে পান্না কায়সারের গ’র্ভে প্রথম সংসারে জন্মগ্রহণ করেন।

পন্না কায়সার তার আগের বিয়ে নিয়ে কেবলমাত্র স্বামী শহিদুল্লা কায়সার ছাড়া কাউকেই কিছু বলেন নি। সম্প্রতি একটি সাক্ষাতকাতে তিনি বলেন, এটা আমার একেবারেই ব্যক্তিগত একটি ঘটনা। এটি শহীদুল্লাহ কায়সার ছাড়া আর কাউকেই বলিনি। আসলে সামাজিক একটা ট্র্যাপের মধ্যে আমি পড়েছিলাম।

বাবা আমাদের এমনভাবে নিঃস্ব করে দিয়েছেন, বাবাকে দোষারোপও করি না বরং বাবার কাছে আমরা কৃতজ্ঞ। তিনি আমাদের মহৎ একটি জিনিস শিখিয়ে দিয়ে গিয়েছেন- কীভাবে দান করতে হয় মানুষকে। তখন আমার পরিবারে আর্থিক সংকট ছিল। আমার বাবা প্যারালাইসড হয়ে গিয়েছিলেন। আমাদের তো বড় ভাই নেই। কে সংসারের হাল ধরবে! তখন- সংসারের দুটি লোক যদি কমে যায়, তাহলে তো ভালোই হয়।

যখন কলেজে পড়ি তখন আমাকে অনেকেরই পছন্দ হয়েছিল। আমার বোনেরা এর আগেও আমাকে বিয়ে দিয়েছিল, যাদের টাকা পয়সা ছিল কিন্তু রুচি ছিল না। যা হোক, আমি শহীদুল্লাহ কায়সারকে বলেছি- ‘স্ত্রীর পত্র গল্পটি আপনি কী পড়েছেন?’ তিনি উত্তর দিয়েছিলেন- ‘হ্যাঁ, পড়েছি। আমি বললাম- কেমন মনে হয় মৃণালকে?’ উনি উত্তর দিলেন- ‘অসম্ভব প্রতিবাদী ও সাহসী এবং সঠিক সি’দ্ধান্ত নিতে পারে। আমি তখন বললাম- ধরুন আমিই সেই মৃণাল।

বর্তমানে শমী কায়সার একজন প্রযোজক। তিনি ১৯৯৭ সালে তার নিজের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ধানসিড়ি প্রোডাকশন প্রতিষ্ঠা করেন। এই প্রতিষ্ঠানের প্রযোজনায় মুক্তি এবং অন্তরে নিরন্তরে নাটক নির্মিত হয়। ২০১৩ সালে নভেম্বরে তার প্রতিষ্ঠান, ধানসিড়ি কমিউনিকেশন লিমিটেড, রেডিও অ্যাক্টিভ নামে একটি বেতার কেন্দ্রের জন্য লাইসেন্স পায়।

শমী ১৯৯৯ সালে ভারতীয় নাগরিক ব্যবসায়ী অর্নব ব্যানার্জী রিঙ্গোকে বিয়ে করে ধর্মান্তরিত করেন। তবে রিঙ্গ পরে আবার নিজের ধর্মে ফিরে যান এবং এর দুই বছর পর তাদের বিচ্ছেদ ঘটে। পরবর্তীতে তিনি ২০০৮ সালের ২৪ জুলাই ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটির শিক্ষক মোহাম্মদ আরাফাতকে বিয়ে করেন এবং তার সাথেও বিচ্ছেদ ঘটে।

পরবর্তীতে তিনি গতরাতে রেজা আমিন সুমন নামে একজন ব্যবসায়ীর সঙ্গে গাটছড়া বাঁধলেন পুরোদস্তুর ব্যবসায়ী বনে যাওয়া এই অভিনেত্রী। রাজধানীর ইস্কাটনে শমীর বাসায় শুক্রবার রাতে দুই পরিবারের সদস্যদের উপস্থিতিতে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়েছে বলে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানিয়েছেন নির্মাতা চয়নিকা চৌধুরী।

                 ফ্রি কুইজে অংশগ্রহণ করে জিতে নিন ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত পুরস্কার

তাদের বিয়ের কয়েকটি ছবি ফেইসবুকে পোস্ট করে নবদম্পতিকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন চয়নিকা চৌধুরী। শমীর সহকর্মীদের মধ্যে অ’ভিনেত্রী তারিন, রিচি সোলায়মান, শামীমা তুষ্টি ও মডেল নোবেলসহ বেশ কয়েকজন তাদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

Tagged