চোখে ঘুম নিয়ে মাইক্রোবাস চালানোয় খালে পড়ে আহত ১৪

সারা বাংলা

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার পেনাকাটা পোল এলাকায় যাত্রীবাহী মাইক্রোবাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খালে পড়ে নারী ও শিশুসহ ১৪ জন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে গুরুতর আহত ১০ জনকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২০ মে) ভোর সাড়ে ৫টায় লক্ষ্মীপুরের মজুচৌধুরীর ঘাট থেকে চট্টগ্রাম যাওয়ার পথে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

গুরুতর আহতরা হলেন- খুলনার খালিশপুরের এএম মহিনের ছেলে ওয়াসিব হাসান (৪৩), চাঁদপুরের পরমজাখান এলাকার আশিকুর রহমানের স্ত্রী তাসলিমা (৩৩), তার ছেলে ইয়াছিন (১১), মেয়ে আয়েশা আক্তার (৪), গোপালগঞ্জের কাটারীপাড়ার টুটপাড়া গ্রামের মফিজ উল্যাহর ছেলে তাহমিন হোসেন (২৬), খুলনার দৌলতপুরের আফজাল খানের ছেলে তুহিন খান (৩৮), খুলনার কাঠালিয়ার সোনাউটা গ্রামের বাবুল মিয়ার মেয়ে তাসলিমা আক্তার (৩৮), বাগেরহাটের ফকিরহাটের মূলঘর গ্রামের রুস্তম মিয়ার ছেলে রবিউল (২৮), বাগেরহাটের চিতলমারীর চরবাড়িয়া গ্রামের জালাল শেখের ছেলে শুক্কুর আলী (১৭) ও মাইক্রোবাসের চালক খুলনার কাশিদিয়া উপজেলার রূপসাঘাট গ্রামের আবু জাফরের ছেলে অনিক (২৮)।

চন্দ্রগঞ্জ হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) যোবায়েরুল হক জাগো নিউজকে বলেন, ‘খবর পেয়ে হাইওয়ে পুলিশ ও বেগমগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে গুরুতর আহত ১০ জনকে উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠিয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘এরা বিভিন্ন জেলা থেকে নদীপথে লক্ষ্মীপুরের মজু চৌধুরীর ঘাটে একসঙ্গে হয়ে ভাড়ায়চালিত মাইক্রোবাসে চট্টগ্রাম যাচ্ছিলেন। ধারণা করা হচ্ছে চালকের চোখে ঘুম থাকায় মাইক্রোবাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে শুকনো খালে পড়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে।’

Tagged