http://igeneration.com.bd/wp-content/uploads/2021/05/the-girl-got-in-trouble-by-marrying-in-love.jpg

ভালোবেসে বিয়ে করে সমস্যায় পড়লেন প্রেমিকা!

সারা বাংলা

পটুয়াখালী দশমিনা উপজেলায় অপহরণ মামলা তুলে নিতে ওসির দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন এক তরুণী। এ সময় আত্মহত্যার হুমকি দিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি ভিডিও আপলোড করেছেন তিনি। শুক্রবার (৭ মে) বিকেলে রিয়াজুল নামে এক ব্যক্তিকে স্বামী দাবি করে তার ফেসবুক থেকে ভিডিওটি আপলোড করা হয়।

ওই তরুণী বাড়ি দশমিনা উপজেলা সদরের পূজাখোলা এলাকার নজরুল ইসলামের মেয়ে। তিনি বেগম আরেফাতুন্নেছা বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে এসএসসি পরীক্ষার্থী। তরুণীর দাবি, তার বয়স ১৮ বছর এবং তার প্রেমিক মিরাজুলের বয়স ২১ বছর।

ভিডিওতে ওই তরুণী দাবি করেন, ভালোবেসে পালিয়ে প্রিয় মানুষকে বিয়ে করায় তার বাবা মিথ্যা অপহরণ মামলা করেছেন। মামলাটি তুলে নিতে ওসির প্রতি আহ্বান জানান ভুক্তভোগী তরুণী।

ওই ভিডিওতে তরুণী বলেন, গত ২৭ এপ্রিল সন্ধ্যায় আমি বাসা থেকে স্বেচ্ছায় পালিয়ে যাই। এর পরে প্রেমিক মিরাজুলকে বিয়ে করি। এটা আমার মা-বাবা মানতে না পেরে স্বামী মিরাজুল, শ্বশুর, শাশুড়ি ও ননদকে মিথ্যা অপহরণ মামলা দেন এবং তাদের টর্চার করা হয়। তারা নির্দোষ। তাদের কোনো দোষ নেই।

তিনি আরও বলেন, ২৪ ঘণ্টা সময় দিলাম। মামলা-মোকদ্দমা উঠান। না হলে আমি আত্মহত্যা করব। আমার মৃত্যুর জন্য আমার মা-বাবা আর আমার ফ্যামিলি এবং যারা এ মামলায় জড়িত তারা দায়ী। এরই মধ্যে ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল রয়েছে।

              ফ্রি কুইজে অংশগ্রহণ করে জিতে নিন ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত পুরস্কার

এ বিষয়ে দশমিনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জসিম উদ্দিন বলেন, ওই তরুণীরর বাবা নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে প্রেমিক মিরাজুল ও তার ভগ্নিপতির বিরুদ্ধে অপহরণ মামলা করেছেন। সে থানায় এসে স্বেচ্ছায় বিয়ে করার কথা বললে আমরা বিষয়টি দেখব।

Tagged