http://igeneration.com.bd/wp-content/uploads/2021/05/৪২১-বছর-সাজা-পাওয়া-সেই-ব্যক্তি-কারাগারে-মৃত্যু.jpg

৪২১ বছর সাজা পাওয়া সেই ব্যক্তি কারাগারে মৃত্যু

সারা বাংলা

১৪ বছরের এক কিশোরীকে একটি আন্ডারগ্রাউন্ড বাঙ্কারে ১০ দিন আটকে রেখে নির্যাতন ও ধর্ষণ করার ঘটনায়  সাজা পাওয়া ব্যক্তি কারাগারে মারা গেছে। সাউথ ক্যারোলাইনার একটি কারাগারে তিনি মারা যান। খবর নিউইয়র্ক পোস্টের। ৪২১ বছর সাজা পাওয়া সেই ব্যক্তির মৃত্যু।

২০০৬ সালে ভয়াবহ ওই অপরাধ সংঘটন করে ৫১ বছর বয়সী ভিনসন ফিলিয়ো। এ ঘটনায় তাকে রাজ্যের ইতিহাসে সর্বোচ্চ ৪২১ বছর সাজা দেয়া হয়েছিল। সোমবার ম্যাককরমিক কারেকশনাল ইন্সটিটিউশনে তিনি মারা যান।

তাকে হত্যা করেছে এমন কোনও আলামত পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছে পোস্ট। ২০০৭ সালে আদালতে নিজের অপরাধ স্বীকার করেন ভিনসন। এই মামলার সরকারি কৌঁসুলি বার্নে গিসে বলেন, তাকে দেয়া ৪২১ বছর সাজারই যোগ্য সে।

ওই মামলার বিচারক জি. থমাস কুপার বলেন, ভিনসন যা করেছে তা ক্ষমা অযোগ্য। তিনি বলেন, ভিনসন অসহায় ভুক্তভোগীদের ওপর সহিংসতা চালাতো এবং সেটা খুবই বর্বর উপায়ে।

মামলার নথিতে বলা হয়, ২০০৬ সালে সেপ্টেম্বর মাসে কেরশ কাউন্টিতে স্কুল বাস থেকে নামার পর ওই কিশোরীর সামনে হাজির হয় ভিনসন। নিজেকে পুলিশ অফিসার দাবি করে ওই কিশোরীকে গ্রেপ্তার করে সে। ওই কিশোরীর পরিবার গাঁজা চাষ করছে অভিযোগ করে এই গ্রেপ্তার করে ভিনসন।

         ফ্রি কুইজে অংশগ্রহণ করে জিতে নিন ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত পুরস্কার

পরে ওই কিশোরীকে জঙ্গলে নিয়ে ধর্ষণ করে এবং তার গলায় একটি নেকলেস ঝুলিয়ে দেয়। ভিনসন ওই কিশোরীকে বলে যদি সে পালানোর চেষ্টা করে তবে এটি বিস্ফোরিত হবে। পরে একটি বাঙ্কারে ওই কিশোরীকে আটকে রেখে নির্যাতন করে ভিনসন। কেরশ কাউন্টিতে ভিনসনের তিনটি বাঙ্কার ছিল।

Tagged