http://igeneration.com.bd/wp-content/uploads/2021/04/মুনিয়ার-সুরতহাল-ও-ময়নাতদন্ত-শেষে-যা-জানা-গেলো.jpg

মুনিয়ার সুরতহাল ও ময়নাতদন্ত শেষে যা জানা গেলো

সারা বাংলা

ঢাকার অভিজাত এলাকা গুলশানের একটি ফ্ল্যাটে কলেজছাত্রী মোসারাত জাহান মুনিয়া আত্মহত্যা করেছেন বলে জানিয়েছেন সুরতহাল ও ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসকরা। মুনিয়ার সুরতহাল ও ময়নাতদন্ত শেষে  জানা গেলো।

তার আত্মহত্যার প্ররোচনার প্রধান আসামি হিসেবে দায়ী করা হয়েছে বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালকে। কিন্তু তিনি এ ঘটনায় জড়িত কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানান পুলিশ।

এদিকে, কেউ আইনের উর্ধ্বে নয়, দোষী প্রমাণিত হলে অব্যশই শাস্তি হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। মোসারাত জাহান মুনিয়াকে হত্যা করা হয়েছে নাকি তিনি আত্মহত্যা করেছেন? তার মরদেহ উদ্ধারের পর এই নিয়ে নানামহলে প্রশ্ন ওঠেছে। এরই মধ্যে মুনিয়ার ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন হাতে পেয়েছেন মামলার তদন্তকারী দল।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গুলশান জোনের উপ-কমিশনার (ডিসি) সুদীপ কুমার চক্রবর্তী গণমাধ্যমকে বলেন, ‘সুরতহালের সময় তাঁরা (চিকিৎসক) শরীরে অন্যকোনো জখমের চিহ্ন বা আঘাত শনাক্ত করেননি বা ওই ধরনের কোনো আঘাত নেই।’

তবে আত্মহত্যার প্ররোচনার প্রধান আসামি বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এ ঘটনায় জড়িত কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।